মানবিক আবেদন

যার যেখানে প্রয়োজন মানুষ ও মানবতার সেবায় নিরন্তন

মানবিক আবেদন

যার যেখানে প্রয়োজন মানুষ ও মানবতার সেবায় নিরন্তন

Find A Donor


মানবিক আবেদন

যার যেখানে প্রয়োজন মানুষ ও মানবতার সেবায় নিরন্তন

Become A Donor


  • আপনার নাম লিখুন
  • আপনার মোবাইল দিন
  • আপনার ব্লাড গ্রুপ সিলেক্ট করুন
  • পুনরায় আপনার ব্লাড গ্রুপ সিলেক্ট করুন
  • আপনার জেলা সিলেক্ট করুন
  • পুনরায় আপনার জেলা সিলেক্ট করুন
  • আপনি যে এলাকায় থাকেন
  • যে দিন ব্লাড দিতে আপনার সুবিধা হয়
  • আপনার শেষ রক্তদানের তারিখ
  • আপনার রক্ত দেবার সময় হয়েছে কি?
  •  

রক্তের জন্য পোষ্ট করুন

***রক্তের জন্য এই ওয়েব সাইটে রিকোয়েস্ট/পোস্ট করতে হলে, অবশ্যই নিচের তথ্যগুলো পরিষ্কার করে লিখবেনঃ

(১) রোগীর সমস্যা?
(২) রক্তের গ্রুপ কি?
(৩) কত ব্যাগ লাগবে?
(৪) কোনদিন লাগবে?
(৫) কোন সময়ের মধ্যে লাগবে?
(৬) হাসপাতালের নাম ও ঠিকানা, ব্লক/ওয়ার্ড, কেবিন/বেড নং? কত তলায়?
(৭) এ্যাডমিট না থাকলে হাসপাতালের নাম লিখে সাথে বহিঃবিভাগ/আউটডোর লিখবেন
(৮) মোবাইল ফোন নাম্বার (রোগীর সাথে হাসপাতালে যিনি আছে) এবং উনি রোগীর কি হোন?
(৯) আপনাদের মাঝে থেকে কেউ অন্য গ্রুপের ব্লাড দিতে পারলে সেই ব্লাড গ্রুপ।

এসব তথ্য ছাড়া আমরা আপনাদের কোন প্রকার সহযোগিতা করতে পারবোনা, তাই দয়া করে সঠিক ও প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে রক্তের জন্য অনুরোধ করবেন।


বিঃদ্রঃ তথ্য এবং রোগীর সত্যতা যাচাইয়ের পরেই মাত্র আপনার আবেদনটি প্রকাশ করা হবে

পোষ্ট কারার জন্য Click Now বাটনে Click করুন......

Click Now

Recent Post

রক্তদান

রক্তদান হল কোন প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ মানুষের স্বেচ্ছায় রক্ত দেবার প্রক্রিয়া। এই দান করা রক্ত পরিসঞ্চালন করা হয় অথবা
Read more →

View

প্লাটিলেট কি?

প্লাটিলেট বা অণুচক্রিকা হলো রক্তের একধরনের ক্ষুদ্র কণিকা, যা রক্ত জমাট বাঁধতে ও রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে সাহায্য করে।
Read more →

View

Volunteers of Humanity

কিছু কথা ছিল

প্রস্তুত যদি থাকে দুইজন রক্তদাতা, থাকবে গর্ভবতী মায়ের প্রাণের নিশ্চয়তা...

প্লাটিলেট বা অণুচক্রিকা হলো রক্তের একধরনের ক্ষুদ্র কণিকা, যা রক্ত জমাট বাঁধতে ও রক্তক্ষরণ বন্ধ করতে সাহায্য করে। স্বাভাবিক মানুষের রক্তে অণুচক্রিকার হার প্রতি ১০০ মিলিলিটারে দেড় লাখ থেকে চার লাখ। সাধারনত ৪জন ডোনার থেকে ১ব্যাগ প্লাটিলেট করে, কিন্তু এখন উন্নত প্রযুক্তি কল্যাণে ১জন ডোনার থেকেই ১ব্যাগ প্লাটিলেট বের করা যায়। যে জন্য এফেরোসিস মেশিন বা প্লাটিলেট মেশিন দ্বারা এক জন ডোনারের কাছ থেকে ২৫০মিলির মতো ব্লাড নিয়ে মেশিনে প্রসেসিং করে প্লাটিলেট বের করে ব্লাডের বাকী অংশ টুকু আবার ডোনারের শরীরে পুশ ব্যাক করে দেয়। এই ভাবে ৬/৭বার করে। প্রতি ধাপে ১০-১৫মি সময় লাগে। মোট ১ ঘন্টা বা ১ ঘন্টা ১৫-২০মি সময় লাগে। (বিদ্রঃ মেশিন ভেদে সিস্টেম একটু আলাদা হয়) কিন্তু প্লাটিলেট দিলে ১০-১৫ দিন পর আবার সে প্লাটিলেট দিতে পারে, কারন অণুচক্রিকা ছাড়া অন্য কিছু নেয়া হয়না। আর অণুচক্রিকার জীবন কাল ৩দিন যা ২/৩ দিনেই শরীরে ব্যাক করে। আরও একটা ব্যাপার হল প্লাটিলেট ডোনার একাই ৪জন ডোনারের কাজ করছে। এত বাকী ৩ জন ডোনার অন্য রোগী কে বাচাঁতে পারবে।

মানবতার ছবি

আমরা ছবি গুলো পাবলিশ করি যেন আপনিও দেখে এগিয়ে আসেন। এই ছবি গুলো দেখে ১জন ও এগিয়ে আসলে আমরা নিজেদের সার্থক মনে করব।

আমাদের কিছু কথা…

সংগঠন একটি সামাজিক প্রক্রিয়া। যেখানে একদল মানুষ একটি সাংগাঠনিক কাঠামোর অন্তভুক্ত হয়ে নিদিষ্ট কিছু লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন  সর্বদা নিরন্তন। মানবিক আবেদন এর ব্যাতিক্রম নয়।মানবিক আবেদন ও  একটি অলাভ জনক মানবসেবা ও মানব উন্নয়ন মূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। মানুষ ও মানবতার সেবায় অঙ্গীকারবদ্ধ।

বাংলাদেশ ইনফরমেশন…

আমাদের অনুসরণ করুন…